জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাড়ি পাঞ্জাবি উৎসব

বিশ্ববিদ্যালয়ের এক একটি বিভাগ মানেই এক একটি পরিবার। এখানে প্রতিটি সদস্যের প্রতিদিন দেখা হওয়াটা সাধারণ বিষয়। আলাদা করে দেখা করা বা কথা বলার কোন আবশ্যকতা নেই। তবুও মাঝে মধ্যেই সকল সদস্যের উপস্থিতিতে কিছু কিছু দিন চমৎকার হয়ে ওঠে পারিবারিক ঘরোয়া অনুষ্ঠানগুলোর মতোই। জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে চালু হয়েছে ‘শাড়ি-পাঞ্জাবি উৎসব’ তথা ‘শা-পা ডে’।এরই মাঝে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের বিভিন্ন ব্যাচে এই উৎসবের আয়োজন করা হয়েছে। উৎসবটি ক্যাম্পাসে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে, বেশ সাড়াও ফেলেছে।
পূজার ছুটির পূর্বে শেষ ক্লাস হয় বৃহস্পতিবার ২৯ সেপ্টেম্বর। ঠিক সেই দিনে একটি উৎসবমুখর পরিবেশ তৈরি হয় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের এ্যাকাউন্টিং এ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস্ বিভাগে। উৎসবের নাম দেয়া হয় ‘শাড়ি-পাঞ্জাবি দিবস’। শাড়ি-পাঞ্জাবি দিবস নামকরণের মধ্য দিয়ে সুন্দর একটি মিলনমেলার সৃষ্টি হয় শিক্ষার্থীদের মধ্যে।

শাড়ি পরে সকল মেয়ে আর পাঞ্জাবিতে ছেলেদের সাজপোশাক নজর কেড়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে। বিভাগের ১৪তম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের আয়োজনে সকল ব্যাচের শিক্ষার্থীদের জন্য ছোট একটি অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে উচ্ছ্বাস ছড়িয়ে পড়ে বিভাগের শিক্ষার্থীদের মাঝে। একটি দিন অন্যরকমভাবে একসঙ্গে কাটানোর আনন্দ ছড়িয়ে পড়ে সবখানে। এই উৎসবকে কেন্দ্র করে সকলের মাঝে একটি প্রাণবন্ত মুহূর্তের সৃষ্টি হয়েছে। ক্যাম্পাস জীবনকে স্মরণীয় ও বন্ধুত্বের বন্ধন আরও সুদৃঢ় করার লক্ষ্যে এই আয়োজন করে শিক্ষার্থীরা।
শাড়ি-পাঞ্জাবি উৎসবকে ঘিরে শিক্ষার্থীদের প্রস্তুতিও ছিল জোরদার। আগের দিন শ্রেণীকক্ষ সাজানো থেকে শুরু করে পরবর্তী সকল আয়োজনে সন্ধ্যা পর্যন্ত কাজ করে শিক্ষার্থীরা। উৎসবকে ঘিরে নানা আকারের পোস্টার, ছবি তোলার ফ্রেম ও সরঞ্জাম বানানোর কাজে সকলের অংশগ্রহণ এক অন্যমাত্রা যোগ করে। অনুষ্ঠানে বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কেক কাটেন।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*