পানির দরে ইজারা কোটি টাকার ওয়াটার বাস

মাসে মাত্র ৩০০০ টাকা ইজারায় দেয়া হয়েছে কোটি টাকার ওয়াটার বাস। গত এপ্রিল থেকে পুরান ঢাকার শ্যামবাজার থেকে কেরানীগঞ্জের তেলঘাট এবং নবাববাড়ী থেকে নাগরমহল ঘাটে খেয়া পারাপার করছে ৫টি বাস। ইজারাদার বিপুল লাভ করলেও বিআইডব্লিউটিসি চালক-স্টাফ বেতনে গচ্চা দিচ্ছে মাসে ৫ লাখ টাকা।

আরামদায়ক যাতায়াতের কথা বলে ২০১৩ সালে ২৫ কোটি টাকায় ১২টি ওয়াটার বাস কেনে বিআইডব্লিউটিসি। যদিও ঢাকার চারপাশে নৌরুটে নানা বাধায় চলাচল করতে পারেনি এগুলো।

 

তবে ঢাকা-কেরানীগঞ্জের দুটি আলাদা রুটে চলছে ৫টি ওয়াটার বাস। প্রতিটি ওয়াটার বাসের প্রতি মাসে ইজারা মাত্র ৩ হাজার টাকায়। কেরানীগঞ্জ বুড়িগঙ্গা নৌকা মাঝি শ্রমজীবী সমিতি এর ইজারাদার। অথচ গত ৬ মাসে চালক ও স্টাফদের জন্য প্রায় ৩০ লাখ বেতন দিয়েছে বিআইডব্লিউটিসি।

ওয়াটার বাস চালক রাজিবুল ইসলাম জানান, আমাদের বেতন সরকারী হিসাবে হয়। আয় ভালোই হয়। ইজারাদারের দাবি নৌকা চলাচলে প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটত। চালকদের জন্যও বাড়তি খরচ করতে হয় তাদের।

ইজারাদার মনির হোসেন জানান, নৌকায় দুর্ঘটনা হতো। পরিত্যক্ত ওয়াটার বাস সচল করেছি। বেতন ও বড় রক্ষণাবেক্ষণ বিআইডব্লিউটিসি দেয়। তবে চালকদের খুশি করতে বখশিশ দেই। ওয়াটার বাস নিয়ে যাত্রী ও মাঝিদের মাঝে ক্ষোভের পাশাপাশি আছে সন্তুষ্টি।

 

বিআইডব্লিউটিসি জানায়, পরীক্ষামূলকভাবে খেয়া পারাপারে চলছে ওয়াটার বাস।

বিআইডব্লিউটিসির চেয়ারম্যান আহমদ শামীম আল রাজী বলেন, চার্টার্ড দেয়া ছিল পরীক্ষামূলকভাবে। এখন বুঝতে পারছি ইনকাম কত। তার ভিত্তিতে টেন্ডার করব।
বহুবার চেষ্টা করেও ওয়াটার বাস চালিয়ে সফল হয়নি, উল্টো লোকসান গুণেই চলেছে বিআইডব্লিউটিসি।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*