প্রেমের অভিনয় করে ধর্ষণের পর ভিডিও ভাইরালের হুমকি, অতঃপর.

গত রোববার (২ অক্টোবর) রাতে র‍্যাব সদর দফতরের গোয়েন্দা শাখার সহযোগিতায় র‍্যাব -১ ও র‍্যাব-১২ যৌথ অভিযান চালিয়ে গাজীপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতার আলামিন হোসেন কুষ্টিয়া কুমারখালী উপজেলার আলাউদ্দিন নগর এলাকার মুক্তার হোসেনের ছেলে। আসামিকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

সোমবার (৩ অক্টোবর) দুপুরে কুষ্টিয়া র‍্যাব ক্যাম্পের সম্মেলন কক্ষে প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কোম্পানি কমান্ডার স্কোয়াড্রন লিডার মোহাম্মদ ইলিয়াস খান।

র‍্যাব সূত্রে জানা যায়, কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালী থানাধীন নন্দলালপুর ইউনিয়নের দশম শ্রেণির এক ছাত্রীর সঙ্গে পার্শ্ববর্তী আলাউদ্দিন নগর গ্রামের যুবক আলামিন হোসেন (২৪) প্রেমের অভিনয় করে আসছিলেন।

আরও পড়ুন: সালিশে বসে ধর্ষণের ভিডিও দেখলেন সবাই, বাড়ি ফিরেই আত্মহত্যা করলেন তরুণী

গত ৬ মার্চ রাতে আলামিন হোসেন ওই স্কুলছাত্রীকে তার বাড়িতে ডেকে নিয়ে যান। সেখানে আগে থেকে অবস্থান করছিলেন তার দুই বন্ধু ইমন ও রাকিব। একপর্যায়ে আলামিন ও তার দুই বন্ধু স্কুলছাত্রীকে দলবদ্ধ ধর্ষণ করে। ধর্ষণের ঘটনাটি ইমন তার মোবাইলে ভিডিও করে রাখেন। পরে ধর্ষণের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে আলামিন সেই স্কুলছাত্রীকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন।

একপর্যায়ে ওই ভিডিও গ্রামের কয়েকজন যুবকের মোবাইলে ছড়িয়ে দেয়া হয়। পরে বিষয়টি জেনে ওই স্কুলছাত্রীর দাদি বাদী হয়ে গত ২২ সেপ্টেম্বর কুমারখালী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০৩-এর পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করেন।

এরপর র‍্যাব-১ ও র‍্যাব-১২ কুষ্টিয়া ক্যাম্প যৌথ অভিযান চালিয়ে আলামিন হোসেনকে গ্রেফতার করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আলামিন হোসেন তার অপরাধের কথা স্বীকার করেছেন বলে জানিয়েছেন কোম্পানি কমান্ডার।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*