সূর্যের বিস্ফোরণেই ধ্বংস হতে পারে পৃথিবী! নির্দিষ্ট তারিখও জানিয়ে দিলেন বিজ্ঞানীরা

প্রত্যেকটি শুরুরই একটা শেষ থাকেই। ঠিক সেভাবেই এই জগতের প্রতিটি জিনিসই হয় ক্ষয়িষ্ণু। এমনকি, আমাদের বিশ্বও তার ব্যতিক্রম নয়। সূর্যের এই গ্রহে আমাদের বাসস্থান হলেও একদিন শেষ হবে বিশ্বের আয়ু। আর বর্তমানে পৃথিবী কবে ধ্বংসের পথে এগোবে হবে সেই উত্তর খুঁজে পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা।

মূলত, বহুদিন ধরেই এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে ব্যস্ত ছিলেন বিজ্ঞানীরা। এবার এই বহুকাঙ্খিত প্রশ্নের উত্তর পাওয়া গেছে বলে মনে করছেন তাঁরা। যদিও, এর আগে অনেক ভবিষ্যদ্বাণী করা হলেও কিন্তু পরে সেগুলি ভুল বলে প্রমাণিত হয়। তবে সম্প্রতি, বিজ্ঞানীরা পৃথিবীর আয়ু শেষ হওয়ার আসল তারিখ ও কারণ খুঁজে বের করতে সক্ষম হয়েছেন বলে জানিয়েছেন। জানা গিয়েছে যে, প্রকৃতপক্ষে সূর্যের কারণেই শেষ হয়ে যাবে বলে পৃথিবী।

৫ বিলিয়ন বছর পর সূর্যে বিস্ফোরণ ঘটবে: ইতিমধ্যেই দ্য মিররের এক প্রতিবেদন অনুযায়ী জানা গিয়েছে যে, বিজ্ঞানীরা দাবি করেছেন, সূর্যের কারণেই পৃথিবী শেষ হয়ে যাবে। বিজ্ঞানীরা অনুমান করছেন, সূর্যের এক ভয়ঙ্কর বিস্ফোরণের জেরেই পুরো মহাবিশ্ব পুড়ে ছাই হয়ে যাবে।

বিজ্ঞাপন

ওই মিডিয়া রিপোর্টে আরও দাবি করা হয়েছে যে, সূর্য এখনও তার যৌবন অবস্থাতেই রয়েছে। অর্থাৎ, এমতাবস্থায় পৃথিবীর কাছে এখনও বেশ কিছুটা সময় রয়েছে। তবে বিস্ফোরণের সময় আমরা কেউই জীবিত থাকব না। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, আজ থেকে ৫ বিলিয়ন বছর পর সূর্যে বিস্ফোরণ ঘটবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এর ফলে শুধু পৃথিবী নয় পাশাপাশি সূর্যের ওপর নির্ভরশীল অন্যান্য একাধিক গ্রহও ধ্বংস হয়ে যাবে।

সূর্যের হাইড্রোজেন কোর কাজ করা বন্ধ করে দেবে: বলা হয়েছে, পাঁচ বিলিয়ন বছর পর সূর্যে উপস্থিত হাইড্রোজেন কোর কাজ করা বন্ধ করে দেবে। যার ফলে তখন আর সূর্য তাপ উৎপন্ন করতে পারবে না। স্বাভাবিকভাবেই তখন অন্যান্য গ্রহগুলিও ঠান্ডা হয়ে যাবে এই কারণে। এর পাশাপাশি বিজ্ঞানীরা দাবি করেছেন, সূর্যের এই ধ্বংসলীলায় বুধ ও শুক্রের মত গ্রহ সামিল থাকলেও পৃথিবীতে যে পরিমান ক্ষতি হবে তা আর কোথাও দেখা যাবে না।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*