মৃ’ত ঘোষণা করেন চিকিৎসক; দা’ফনের সময় নড়ে উঠলো শিশু

ঢাকা মেডিকেলে এক অদ্ভূত ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) ভোরে এক ন’বজাতকের জন্ম দেন শাহিনুর নামের এক নারী।

জন্মের পরপরই ঐ ন’বজাতককে মৃ’ত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। পরে একটি প্যাকেটে ভরে শাহিনুরের স্বামী ইয়াসিনের কাছে হস্তান্তর করে চিকিৎসক জানান সন্তানটি মৃ’ত অবস্থায় জন্ম নিয়েছে।

কিন্তু ঘটনার মোড় ঘুরে যায় নবজাতককে দা’ফনের জন্য নিয়ে যাওয়ার সময়। ইয়াসিন বসিলা ক’বরস্থানে দা’ফনের জন্য দিতে গেলে হঠাৎ ন’বজাতকটি নড়ে ওঠে। পরে সেখান থেকে তিনি ন’বজাতকে দ্রুত ঢামেক নিয়ে আসেন।

বর্তমানে ঢামেক হাসপাতালের ন’বজাতক ওয়ার্ডে ন’বজাতকটি চিকিৎসাধীন আছে। সেখানের চিকিৎসকরা বলেছেন, ন’বজাতের অবস্থা তেমন ভালো না, যেকোনো সময় কিছু ঘটে যেতে পারে।

ইয়াসিন মোল্লা জানান, ঢামেক হাসপাতালে সন্তান জন্মের পরপরই সেখানের লোকজন হ্যান্ড গ্লাভস রাখার একটি খালি বড় প্যাকেটে ভরে ন’বজাতকটিকে মৃ’ত বলে আমাকে দেন।

সেই প্যাকেটটি নিয়েই আমি কবরস্থানে গিয়েছিলাম। সেখানে নড়ে ওঠে আমার ন’বজাতক সন্তান। এ বিষয়ে ঢামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন জানান, ন’বজাতকটি জীবিত আছে। সে ভালো আছে ও তার চিকিৎসা চলছে। সূত্রঃ সময় টিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *