ঘরে এসে মা দেখলেন তার মেয়েকে প্যা’ন্ট প’রাচ্ছে হাফিজুর

যশোরের শার্শায় চাতাল শ্রমিকের পাঁচ বছরের শিশুকে চাতাল মালিক হাফিজুর (৬০) কর্তৃক …… চে’ষ্টার অ”ভিযোগ উঠেছে।

এ ঘটনা জানাজানি হলে স্থানীয় স–ন্ত্রাসীদের দ্বা’রা ওই শ্রমিককে জো”র করে সাদা কাগজে কাজ না করার শর্তে লিখে নিয়ে গোপনে বাড়ি পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে।

শি’শুটিকে ……. চে’ষ্টার ঘটনাটি ২৩ ডিসেম্বর রাতে ঘটলেও সোমবার সকালে প্রকাশ পায়। চাতাল মালিক হাফিজুর সাতক্ষীরা জেলার কলারোয়া উপজেলার জিওলিতলা গ্রামের ইদ্রিস আলী মোড়লের ছেলে।

জানা যায়, চাতাল মালিক হাফিজুর শার্শা উপজেলার নিজামপুর ইউনিয়নের গাতিপাড়ায় পাশাপাশি দুটি চাতাল ভাড়া নিয়ে ব্যবসা করেন। ওই চাতালে খুলনা জেলার কয়রা উপজেলার ঘুগরোখালী গ্রামের

সাহাদত হোসেন ও তার স্ত্রী সালমা খাতুন শ্রমিকের কাজ করেন। ঘটনার দিন সালমা খাতুন চাতালে মিলিংয়ের কাজ শেষে রাত ৮টার দিকে অন্য চাতালে এসে দেখতে পান

তার পাঁচ বছরের মেয়ে কান্নাকাটি করছে। এ সময় তার মেয়েকে চাতাল মালিক হাফিজুর প্যান্ট পরাচ্ছেন। বিষয়টি স”ন্দেহ হওয়ায় মা মেয়েকে নিয়ে পরীক্ষা করে অ’সাম’ঞ্জস্য পূর্ণ অবস্থা দেখতে পান। হাফিজুর সালমা খাতুনকে এ মর্মে বিভিন্ন ভ’য়ভী’তি দেখায় যে বিষয়টি যেন জানাজানি না হয়। কাউকে জানালে জীবন না’শের হু-মকি দেয় হাফিজুর। পরে মা সালমা এলাকার লোকজনকে সঙ্গে নিয়ে থানায় যেতে চাইলে স্থানীয় স–ন্ত্রাসীদের বা’ধায় আর যাওয়া হয়নি। তাদের আ’টকে রেখে শনিবার সকালে স–ন্ত্রাসীরা জীবন না’শের ভ’য় দেখিয়ে বিরাট অ’ঙ্কের টাকার বিনিময়ে সাদা কাগজে আর কাজ করব না বলে লিখে নিয়ে গো’পনে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *